Worshipping Lord Shiva
Destinations

Field Notes: Kashi II

v.

আস্তে আস্তে বুঝতে পেরেছিলাম যে কাশী শহর টা ঠিক এক মাত্রিক নয়। দেখতে গেলে, কোনো শহরই একমাত্রিক নয়, কিন্তু কাশী তে বহুমাত্রিকতা টা ততই প্রকট হয় যত গঙ্গা এগিয়ে আসে, এবং চোখ কান নাক খোলা রাখলে সম্পূর্ণ পরিবর্তন টা চোখে পড়তে বাধ্য। আধুনিক কাশী, পুরাতন কাশী পেরিয়ে গিয়েও গঙ্গাবক্ষের কাছে এসে আমি পৌঁছে গেছিলাম কাশী প্রাচীনতার সান্নিধ্যে। এখানে সময় শান্ত, ইতিহাস চিরজাগ্রত এবং আমাদের জাগতিক জীবনের অস্তিত্ব নগণ্য। বিশালের সামনে নিজের ক্ষুদ্রতা চিনতে শেখা একইসাথে ভয়াবহ এবং সমীহ উদ্রেগকারী, আর হয়তো আমাদের সকলের জন্যেই তা বেশ প্রয়োজনীয়ও বটে।

কাশীর ঘাট গুলি দিয়ে, গঙ্গা কে পাশে রেখে এগিয়ে যাওয়ার জন্ন্যে সবচেয়ে ভালো সময় কিন্তু ভোরবেলা। যে কোনো ধর্ম কেন্দ্রীক শহরের আত্মিক বৈশিষ্ট্য গুলো ফুটে ওঠার মাহেন্দ্রক্ষণ শুরু হয় ভোর ৪ টে নাগাদ। যত ভক্তি-প্রবল জায়গা, তত সূর্য-নমস্কারী আর পাপ স্খলনকারীদের প্রাতরাশ-পূর্ব কর্ম যজ্ঞ হলো এই সময়ে সারা দিনের পুণ্য সঞ্চয় করা। যত আলো ফোটে, তত রং রস গন্ধের সমারোহে কাশী নিছক একটা স্থান হওয়া ছেড়ে দিয়ে আধ্যাত্মিকতা কে আপন করে নেয়।

vi.

গেরুয়া শাসিত হলেও ঘাটে দৌরাত্ম্য কিন্তু লাল কৌপিন ধারী বাবাদের। কেউ কেউ আপনভোলা, কেউ কেউ গাঁজা ভাং এর জোরে সিদ্ধি লাভ করেছেন আর কেউ কেউ রাগী চোখে তাকিয়ে থাকেন। একটু সাহস করে এগিয়ে গিয়ে গল্প জুড়তে পারেন, আশীর্বাদ পাবেন না অভিশাপ সেটা আপনার কপালের জোর। কপাল ভালো থাকলে বাবার প্রসাদ ও মিলতে পারে ছিলিম ভরে।

হাঁটতে হাঁটতে এগিয়ে গেলে, স্বেচ্ছায় গলি ঘুঁজি গুলো তে হারিয়ে যাওয়ার রোমাঞ্চ হাতে নিয়ে কাশীর রহস্য উন্মোচনে মত্ত হওয়াও কিন্তু এক ধরনের নেশা। শুনেছি নিষিদ্ধপল্লি গুলোর বাড়বাড়ন্তের দিক দিয়ে এই শহর টি দেশের প্রথম সারি তে বসার দাবিদার। নিদেন চুরি ডাকাতি খুন খারাপির বাজারও নাকি মন্দ নয়। সৌভাগ্যক্রমে, ভাগ্য সদয়। পকেটমারি বা প্রাণসংশয়, এই যাত্রায় একটিও হয়নি।

vii.

হাঁটতে হাঁটতে এগিয়ে গেছিলাম। বহু লোকের আনাগোনা ঠেলে। ঘাটের ভিড়ের থেকেও গঙ্গা তে স্নান রত জনসংখ্যা নেহাত কম নয়। তাদের কেউ কেউ দেখলাম মন্দিরের পুজো শেষে জলে ভাসিয়ে দিচ্ছে পুজোর যজ্ঞের সামগ্রী। স্থানীয় বাচ্চারা ওৎ পেতে আছে, সেই ভাসিয়ে দেওয়া জিনিস গুলো তুলে এনে অন্য কোথাও বেচে দেওয়ার প্রস্তুতি নিতে। দেখে মনে হলো এটাই আসল বিসর্জন, দেবলোকের যন্ত্রপাতি গঙ্গায়ে ডুবে নিমেষে শুধুই বস্তু দ্রব্য হয়ে উঠলো। আরো খেয়াল করলাম যে যতটা নোংরা হওয়ার কথা, ঘাট গুলো তার থেকে অনেক পরিষ্কার। হয়তো স্বচ্ছ ভারত এর ইতিবাচক সারা কিছুটা হলেও মানুষ জন দিয়েছে। রোদ বাড়লো, আমিও হাঁটতে হাঁটতে পৌঁছালাম কাশীর বার্নিং ঘাটে।

মৃত্যু আর মৃত্যু প্রসঙ্গ হটাৎ করে মানুষ কে শান্ত করে দেওয়ার স্পর্ধা রাখে। ব্যতিক্রম হতে পারিনি, মাঝ দুপুরের আবহ তেও শ্মশান সংলগ্নতা আমাকে থামিয়ে দিয়েছিলো। ঘন্টা খানেক দাঁড়িয়ে দেখেছিলাম কাঠের চিতার ওপরে কারো স্বর্গ লাভ, কারো নরক গমন। প্রশ্ন উঠেছিল, এই এক রাত এক দিনের চেনা শহরে, যেখানে কয়েক পরত আধুনিকতার আড়ালে লুকিয়ে আছে প্রাচীন এক সত্তা, সেই প্রাচীনতার মাঝে আমাদের ক্ষণস্থায়ী মনুষ্যত্বের অস্তিত্ব কতটা আর তার দামই বা কতটা। পাল্টা প্রশ্ন উঠেছিল, এই রীতি নীতির সংস্কারের ধারক আর বাহন যখন আমরা, তখন আমাদের বাকি রেখে এই শহর টুকুর ই বা অস্তিত্ব কি।

viii.

শাস্ত্রে বিজ্ঞজনেরা সত্যি সত্যি লিখেছিলেন “বিশ্বাসে মিলায় বস্তু, তর্কে বহুদূর”। বেনারস আমার সাথে তর্ক করেনি, বেনারস আমার বিশ্বাসবোধের ওপরে অনুপ্রবেশও ঘটাতে পারেনি। কিন্তু ওই অল্প সময়ের মধ্যেও, বেনারস আমাকে পঞ্চ ইন্দ্রিয় দিয়ে পারিপার্শ্বিকের রসস্বাদন করতে শিখিয়েছে। আর শিখিয়েছে ভাবতে। আস্কারা দিয়েছে, জীবনের প্রতি করা নিজের প্রশ্ন গুলোর উত্তর খুঁজে বার করতে।


Read the first part of this post: Field Notes: Kashi

Have you visited Kashi? Share your experiences with us.

Advertisements
Standard

5 thoughts on “Field Notes: Kashi II

  1. Pingback: Field Notes: Kashi | Two Bangali Backpackers

  2. Ananya Sarkar says:

    Lekha ta porte porte amar mone hochhilo j oi goli gulo die jeno amie hatchi. Kashi te kokhno na gieo seta k emn vabe onubhob korte parbo vabini kokhno. Khub valo laglo ei part tao.

    Like

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

w

Connecting to %s

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.